Quantcast
  • শনিবার, ১৬ কার্তিক ১৪২৭, ৩১ অক্টোবর ২০২০

শ্রীপুরে দৃষ্টিনন্দন ড্রাগন বাগান


সাতকাহন ডেস্ক | আপডেট: ১২:৫০, জুন ২৭, ২০২০
 
 
 
 


পুষ্টিগুণ সম্পন্ন, উচ্চ ফলনশীল ও লাভজনক হওয়ায় বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় ড্রাগন ফল চাষ এখন দিনদিন জনপ্রিয় হচ্ছে। গাজীপুরের শ্রীপুর মাওনা চকপাড়া এলাকায়  ড্রাগন বাগান । মাওনার চকপাড়া গ্রামের সাহাব উদ্দিনের ছেলে নুরে আলম ২ বছর ধরে ১ বিঘা জমিতে  নিজ হাতে প্রায় আড়াই  লক্ষাধিক টাকা ব্যয়ে গড়ে তুলেছেন দৃষ্টিনন্দন ড্রাগন বাগান। লকডাউনের বন্ধে পুরো সময়টাই কাটাচ্ছেন বাগান  সাজানোর কাজে। শনিবার (২৭) জুন সরেজমিনে গিয়ে কথা হয় ড্রাগন ফল চাষী নুরে আলমের সাথে ।   তিনি জানান, নিজস্ব প্রায় ১ বিঘা  জায়গায় ড্রাগনের পাশাপাশি পেঁপে ও ৫০ শতক জায়গায় লাগিয়েছেন ডেরস  । বছর খানেক আগে ২ শত চারা দিয়েই ড্রাগন বাগানটি সাজানো হয়।কৃষি বিভাগের সহযোগিতা  পেয়েই  কাজ শুরু করেন। বর্তমানে বাগানে প্রায় ৪০০ ফল বাজারজাতের উপযোগী হতে চলেছে। ২০/২৫ দিনের মধ্যেই বাজারজাত করা যাবে।

আর ড্রাগন ফুল ফুটেছে হাজারেরও অধিক। ফুল থেকে ফল হতে সময় লাগে প্রায় দেড় মাস। দুই জাতের ফল রয়েছে বাগানে যার মাঝে একটির ভিতরে ম্যাজেন্ডা লাল অন্যটির ভিতর সাদা। বাজারে প্রতি কেজির মূল্য ৪০০ টাকা। দুটো বা তিনটায় এক কেজি হয়। পাশাপাশি হাজারেরও অধিক ড্রাগনের চারা এরই মাঝে বাজারজাতের জন্য প্রায় তৈরি। প্রতি চারার মূল্য ২৫ থেকে ৩০ টাকা বলে জানান তিনি।

ড্রাগনের ফাঁকে ফাঁকে রয়েছে প্রায় শতাধিক পেঁপে গাছ। যা থেকে অর্ধ লক্ষাধিক টাকার পেঁপে বিক্রি করেছেন। তবে কিছু কিছু পেঁপের চারা অতি বৃষ্টিতে নষ্ট হয়েছে বলে জানায়।  তিনি জানান, ড্রাগনে মাঝে মাঝে ছত্রাক দেখা দিলে জীবানুনাশক স্প্রে করা লাগে আর পঁচন দেখা দিলে অপারেশন করে ডাল কেটে ফেলে দিতে হয়।