Quantcast
  • বুধবার, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০২ ডিসেম্বর ২০২০

পাটের বাম্পার ফলন, কৃষকের মুখে হাসি


সাতকাহন ডেস্ক | আপডেট: ১৯:১১, অগাস্ট ১০, ২০২০
 
 
 
 

 
করোনাকালে ঠাকুরগাঁও  রুহিয়ায় পাটের ফলন ভালো এবং  দামেও খুশি কৃষক। ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় পাটের লক্ষমাত্রা অর্জন, ফলন ভালো এবং দামে খুশি কৃষকরা। কৃষি বিভাগও পাট চাষের প্রতি কৃষকের আগ্রহ বাড়ানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। চলতি বছর ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় ১ হাজার ২২০ হেক্টর জমিতে পাট চাষের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়, অর্জনও হয়েছে শতভাগ।

সদর উপজেলাধীন রুহিয়া থানার বিভিন্ন হাটে-বাজারে পাট বিক্রি হচ্ছে ১৮শ‘ থেকে ১৯শ‘ টাকা মণ দরে। পাটের এই দাম পেয়ে কৃষকরা খুশি বলে বিভিন্ন এলাকার কৃষকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে। এ বছর স্বাভাবিক বর্ষা হওয়ায় পাট কাটা, জাগ দেয়া, শুকানো এবং বাজারজাত করা কৃষকদের পক্ষে অনেকটাই সহজ হয়েছে বলেও জানা গেছে। এখন এলাকার সর্বত্র চলছে পাট কাটা, জাগ দেয়া, পাটের আশ ছাড়ানো, শুকানো এবং বাজারজাত করা। ঘনিমহেষপুর গ্রামের কৃষক গণি হোসেন বলেন, এ বছর পাট চাষের উপযোগী পরিবেশ আছে। সরকারি সহযোগিতা পেলে উৎপাদন খরচ আরো কম হত। যেহেতু সরকারি সহযোগিতা পাইনি তাই পাটের দাম আর একটু বেশি হলে ভাল হত।