Quantcast
  • বৃহস্পতিবার, ১০ আষাঢ় ১৪২৮, ২৪ জুন ২০২১

ময়মনসিংহে তরুণ উদ্দ্যোগক্তাদের হাত ধরে ঘুরে দাড়াচ্ছে পোলট্রি শিল্প


শেখ নাজমুল আমিন সোহাগ , ব্যুরো প্রধান ময়মনসিংহ | আপডেট: ১৩:০২, মে ০৫, ২০২১
 
 
 
 


বিশ্বব্যাপী চলছে মহামারী করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। যার আঘাতে বিপর্যস্ত পুরো বিশ্ব অর্থনৈতিক ব্যাবস্থা। দিন দিন কর্ম হারিয়ে বেকারত্বের হার বৃদ্ধি পাচ্ছে ঘোটা বিশ্বে।

এর ভয়াল থাবা থেকে রেহায় পায়নি বাংলাদেশও। বেসরকারী বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন এমন অনেক তরুন কাজ হারিয়ে যখন দিশেহারা । এমন সময় ময়মনসিংহ জেলার পাগলা থানার নিগুয়ারী ইউনিয়ন এর ছোট বারই হাটি গ্রামের কয়েকজন তরুন উদ্দ্যোগক্তা আশার আলো দেখান বেকার তরুণদের ।  নিজেদের কে নতুন যুদ্ধে অবতীর্ণ করেন। দেশের ধ্বংস প্রায় পোল্ট্রি শিল্পের বিনিয়োগ করে আলোর মুখও দেখতে শুরু করেন তারা।এই গ্রামে প্রথম আরব আমিরাত ফেরত তানজিদ খান ও রবিন খান শুরু করেন এই ব্যাবসা। তাদের সফলতায় অনুপ্রাণিত হয়ে চীন থেকে মেরিন ইন্জিয়ারিং এ ডিগ্রী অর্জনকারী আত্ববিশ্বাসী তরুন আরিফুল ইসলাম। তিনিও সফল হন। তাদেরকে অনুসরন করে পর পর লেয়ার মুরগীর পোল্ট্রি করেন বেসরকারী স্কুলের শিক্ষক কামাল উদ্দিন শেখ ও দুবাই ফেরত আলতাফ হোসেন খান। এছাড়া মীর বাড়ীর কাওসার মীর ও পাশের গ্রামের সোহাগ ছাড়াও অনেকেই । এখনো পর্যন্ত সফলভাবে চালিয়ে যাচ্ছেন এই ব্যাবসা। নতুন করে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে দিয়েছেন আরো ১০/১৫ জন লোকের। এতে নতুন আশার আলো দেখাচ্ছেন বেকারদের । করোনাভাইরাসের প্রভাবে দেশের পোল্ট্রি শিল্পে যেন দুর্যোগ নেমে এসেছিল। তবে এ সংকট কেটে যাওয়ায় আবারো ক্রেতাদের আস্থা ফিরে আসছে পোল্ট্রি শিল্পে। এতে নতুন করে আশার আলো দেখছেন পোল্ট্রি খামারিরা।