Quantcast
  • মঙ্গলবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৭, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০

শিরোনাম

প্রতারণা থেকে বাঁচতে ছয় ধরনের পুরুষ থেকে দূরে থাকুন


সাতকাহন | আপডেট: ১২:৩৪, মে ১৭, ২০২০
 
 
 
 


লোবাসার সম্পর্ক গড়ে ওঠে আস্থা ও বিশ্বাসকে কেন্দ্র করে। যখনই এই গভীর সম্পর্কে আস্থা ও বিশ্বাসের অভাব দেখা দেয়, তখনই শেষ হতে থাকে ভালোবাসার বন্ধন। দেখা যায় শুধুমাত্র সন্দেহ প্রবণতার কারণে ভেঙ্গে যায় অসংখ্য ভালোবাসার সম্পর্ক। আর এর জন্য প্রেমিক কিংবা প্রেমিকা উভয়ই দায়ী থাকতে পারে। তাই আগে থেকে বোঝা সম্ভব নয় যে, প্রেমিক নাকি প্রেমিকা কে প্রতারণা করবে। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কয়েক ধরনের পুরুষ আছে যাদের বৈশিষ্ট্য বিশ্লেষণ করা হয়েছে। দেখা গেছে তাদের মধ্যে প্রতারণার প্রবণতা বেশি। বিশেষজ্ঞদের গবেষণা অনুযায়ী এমন ছয় ধরনের পুরুষ রয়েছে যাদের মধ্যে প্রতারণা করার প্রবল আশঙ্কা আছে। প্রতারণা থেকে বাঁচতে চলুন জেনে নেয়া যাক সেই ছয় ধরনের পুরুষ সম্পর্কে- মনের টান নেই এমন অনেক পুরুষই আছে যাভারা ভাবভঙ্গিতে সঙ্গিনীর প্রতি দারুণ আন্তরিকতা প্রকাশ করেন। তবে যখন মনের টানের বিষয় সামনে আসে, তখন তা তারা মোটেও অনুভব করেন না। আবার দেখা যায় অনেক পুরুষ দৈহিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে আন্তরিক, তবে সঙ্গিনীর মানসিক সমস্যা বা অন্য কোনো সমস্যার ক্ষেত্রে একদমই উদাসীন। মূলত এ জাতীয় পুরুষদের মধ্যে প্রতারণার প্রবণতা বেশি লক্ষ করা যায়। সব বিষয়ে রহস্যময় যেসব পুরুষদের মধ্যে বেশি গোপনীয়তা রক্ষা করার স্বভাব থাকে, তারাই বেশিরভাগ সময় সঙ্গীর সঙ্গে প্রতারণা করে। কারণ এমন গোপন থাকার স্বভাব প্রতারণার প্রথম লক্ষণ। হয়তো তাদের সঙ্গিনীর সঙ্গে আচরণ বেশ ভালো। তবে গবেষণার ফল অনুযায়ী লুকোচুরি স্বভাবে পুরুষরা প্রতারণায় পারদর্শী হয়। মা-ভক্ত নন মাকে ভালোবাসে না এমন সন্তান খুঁজে পাওয়া দায়। তবে অনেক পুরুষই আছে যারা মোটেও মা ভক্ত নন। যদিও বেশিরভাগ নারীরা মা ভক্ত পুরুষ পছন্দ করেন না। তবে গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব পুরুষ একেবারেই মা-ভক্ত নন, তাদের মধ্যে প্রতারণার স্বভাব প্রবল। সম্পর্ক গোপন রাখেন কিছু কিছু পুরুষ আছে যারা সম্পর্ক সবার কাছে গোপন রাখেন। বন্ধু বা স্বজনের সঙ্গে কখনোই সঙ্গিনীকে পরিচয় করিয়ে দেন না। পরিচিত কাউকে দেখলেই নিজেকে লুকিয়ে ফেলেন। এমনকি ফেসবুকে নিজের স্ট্যাটাসও সিঙ্গেল রাখেন। এই ধরনের পুরুষদের মধ্যেও প্রতারকের স্বভাব স্পষ্ট। শুধু ভুলে যান অনেক পুরুষই এমন আছেন যারা সঙ্গিনীর সঙ্গে দেখা করার জন্য নির্দিষ্ট সময় দেন। তবে কোনো না কোনো কাজের কারণে সেখানে নিজে আসতে পারেন না। আর এই আসতে না পারার খবরটি তিনি সঙ্গিনীকে জানাতে ভুলেও যান। পরে দেখা হলে অতি আন্তরিকতার সঙ্গে দুঃখ প্রকাশ করেন। এমন স্বভাবের পুরুষদের মধ্যেও প্রতারণার প্রবণতা লক্ষ করা যায়। সঙ্গিনীকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান অনেক পুরুষ আছে যারা সঙ্গিনীকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান। তিনি চান সে যা বলবে সঙ্গিনী তাই করবে। এক কথায় কড়া নজরে রাখেন। সাধারণত যেসব পুরুষরা সঙ্গিনীকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে পছন্দ করেন, তাদের মধ্যেও প্রতারণার প্রবণতা প্রবল ভাবে লক্ষ করা যায়।