Quantcast
  • সোমবার, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৩ অগাস্ট ২০২০

অপরিকল্পিত মৎস্য চাষ, গাজীপুর সদরে পানি বন্ধি ৫’শত পরিবার


সাতকাহন ডেস্ক | আপডেট: ২৩:২৬, জুলাই ১১, ২০২০
 
 
 
 


গাজীপুর সদরে পানি বন্ধি ৫শত পরিবার এবং প্রায় ১শত ৫০ টি পরিবারের বসত ঘরে পাণি ঢুকে পড়েছে । গাজীপুর সদর এলাকার ভাওয়ালগড় ইউনিয়নরের ২ নং ওয়াড পানি বন্ধি হয়ে পড়েছে প্রায় ৫ শত পরিবার । বাঘের বাজার থেকে দক্ষিনে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসরকের পশ্চিম পাশের এলাকায় অপরিকল্পিত মৎস্য চাষের কারনে সামান্য বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। বৃষ্টি হলে পানি জমে স্থানিয়দের বসত ঘরে প্রবেশ করেছে ।পানি যাওয়ার একমাত্র কালভাটওি বন্ধ করে রেখেছেন নওয়াব আলীর ছেলে মিয়ার উদ্দিন । যার কারনে সামান্য বৃষ্টি হলেই বসত ঘরে পানি প্রবেশ করে । প্রায় ১৫০টি বসত ঘরে পানি প্রবেশের কারনে গৃহবন্ধি হয়ে পড়েছে ঐ পরিবারগুলো । সরেজমিন ও এলাকাবাসি সূত্রে জানাযায়, বাঘের বাজার থেকে দক্ষিনে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসরকের পশ্চিম পাশে অপরিকল্পিত মৎস্য খামারের কারনে এই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে । স্থানীয়রা জানায় ঐ এলকার মিয়ার উদ্দিন ও আজিম উদ্দিন নামক দুই ব্যক্তি মাছের খামার গড়ে তোলেন । ব্যক্তিগত শুত্রতার কারনে মিয়ার উদ্দিন রাস্তার পাশে বাঁধ দিয়ে রাখায় পানি অন্যত্র যাইতে না পারায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হচ্ছে । তাঁরা ১০ বিঘার জমির উপর দুটি মাছের খামার তৈরি করেন । রাস্তার দুই পাশে বাঁধ দেওয়ার পানি যাওয়ার পথ বন্ধ হয়ে গেছে । জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পেতে ঐ এলাকাবাসি প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করছে । ঐ এলাকার আমিনুল ইসলাম স্বপন জানান, অপরিকল্পিত মৎস্য চাষের কারনে এবং পানি যাওয়ার বাঁধটি বন্ধ থাকায় এই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে । তিনি আরো বলেন,প্রায় ১শত ৫০ টি পরিবারের ঘরে পানি প্রবেশ করেছে ।

ভাওয়ালগড় ইউনিয়নের ২ নং ওয়াড সদস্য আতাব উদ্দিন বলেন ,আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে মিয়ার উদ্দিনকে বাঁধ ছাড়তে বলেছি । বাঁধ ছেড়ে না দিলে মানুষের ঘড় ভেঙ্গে যাবে । বাঁধ ছেড়ে দিলে রাতে পানি চলে যাবে ।