Quantcast
  • বুধবার, ৬ কার্তিক ১৪২৭, ২১ অক্টোবর ২০২০

করোনাভাইরাস: যুক্তরাষ্ট্রে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহারের অনুমোদন প্রত্যাহার


সাতকাহন | আপডেট: ১১:৫৮, জুন ১৬, ২০২০
 
 
 
 


সোমবার এফডিএ জানিয়েছে, ক্লিনিকাল ট্রায়াল থেকে পাওয়া নতুন প্রমাণে বোঝা গেছে ওষুধটি ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রভাব ফেলে এমন বিশ্বাস আর যুক্তিসঙ্গত নয়।রয়টার্স জানায়, এফডিএ-এর এই সিদ্ধান্ত আসার পর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহারের পক্ষে তার প্রচার ‘ঠিক ছিল’ বলে সাফাই গেয়েছেন।গত মার্চ মাসে এফডিএ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে ওষুধটি জরুরি পরিস্থিতিতে ব্যবহারের অনুমোদন দেয়।তবে সোমবার সংস্থাটি জানায়, ক্লিনিকাল সমীক্ষায় দেখা গেছে, হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন মারাত্মক এই ভাইরাসের চিকিৎসায় অকার্যকর এবং এটি সংক্রমণ রোধ করতে ব্যর্থ হয়েছে।কয়েক দশকের পুরানো ম্যালেরিয়ার ওষুধটি নিয়ে একাধিক গবেষণায় এটি কোভিড-১৯ প্রতিরোধে এবং চিকিৎসায় অকার্যকর প্রমাণের পর এফডিএ এই সিদ্ধান্ত নিল।ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা এ মাসের শুরুর দিকে কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসা করার ক্ষেত্রে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনকে ‘অকার্যকর’ বলে সিদ্ধান্ত দিয়ে বড় একটি পরীক্ষা বন্ধ করে দেন।এফডিএ-এর সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় ট্রাম্প বলেছেন, তিনি প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা হিসেবে নিজেই ওষুধটি খেয়েছিলেন এবং তাতে কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়নি।সোমবার তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “আমি এ নিয়ে অভিযোগ করতে পারি না। আমি এটি দুই সপ্তাহ ধরে খেয়েছি।“আমি জানি না এর প্রভাব পড়েছিল কিনা। কিন্তু নিশ্চিতভাবেই এটা আমার ক্ষতি করেনি”৭৪ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের দাবি, অনেক লোক তাকে বলেছিল ওই ওষুধ তাদের জীবন রক্ষা করেছে।