Quantcast
  • বুধবার, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ অগাস্ট ২০২০

গোপালগঞ্জে পাঁচ ইউনিয়নের ১০ গ্রাম প্লাবিত


সাতকাহন ডেস্ক | আপডেট: ০৯:০১, জুলাই ৩১, ২০২০
 
 
 
 


গোপালগঞ্জের নদ-নদীতে পানি বাড়তে শুরু করেছে। বন্যার আশংকা করছেন জেলার বিভিন্ন গ্রামবাসী। ইতিমধ্যে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলাসহ কাশিয়ানী ও মুকসুদপুর উপজেলার অন্তত পাঁচ ইউনিয়নের ১০টি গ্রামের নিম্নাঞ্চলের বাড়ি-ঘরে পানি ঢুকে পড়েছে। রাস্তা-ঘাটও তলিয়ে গেছে এসব এলাকার। কাশিয়ানী উপজেলার সিংগা ইউনিয়নের সিংগা হাইস্কুল ও ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ৫০ টি পরিবার আশ্রয় নিয়েছে এবং সদর উপজেলার উলপুর ইউনিয়নের ১৫টি পানিবন্দী পরিবার উলপুর হাইস্কুলে আশ্রয় নিয়েছে।জানা গেছে, সদর উপজেলার উলপুর,নিজড়া, হরিদাশপুর ইউনিয়ন, কাশিয়ানী উপজেলার সিংগা ও হাতিয়াড়া ইউনিয়নের এসব গ্রামের সহস্রাধিক পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন। 

বৃহস্পতিবার দুর্গত বেশ কিছু মানুষের মধ্যে চাল ও শুকনা খাবারসহ বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিকুর রহমান ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মনোয়ার হোসেন উপস্থিত থেকে এসব খাদ্য সহায়তা বিতরণ করেন।মধুমতি নদীর পানি বিপৎসীমার ৪৯ সেন্টিমিটার এবং বিল রুট ক্যানেলের পানি ৩০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে বলে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী বিশ্বজিৎ বৈদ্য জানিয়েছেন।ইতিমধ্যে দুর্গতদের সাহায্যের জন্য দেড়শ’ মেট্রিক টন চাল ও আড়াই লাখ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা। জেলা প্রশাসক জানান, জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ত্রাণ দেয়া শুরু হয়েছে। সার্বক্ষনিকভাবে জেলার সর্বত্র খোঁজ খবর রাখা হচ্ছে।