Quantcast
  • বৃহস্পতিবার, ১০ আষাঢ় ১৪২৮, ২৪ জুন ২০২১

টাঙ্গাইলে প্রবাসীর স্ত্রী নিখোঁজ! থানায় পাল্টাপাল্টি জিডি


ইমরুল হাসান বাবু ,স্টাফ রিপোর্টার | আপডেট: ১৭:১৭, মে ২১, ২০২১
 
 
 
 


টাঙ্গাইলে দু দিন ধরে এক সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। নিখোঁজ অন্তরা (২৫) শহরের দিঘুলীয়া প্যাড়াডাইস পাড়া এলাকার প্রবাসী জনি মিয়ার স্ত্রী। এ ঘটনায় শুক্রবার (২১মে) দুপুরে টাঙ্গাইল সদর থানায় গৃহবধুকে ফিরে পেতে দুপক্ষের লোকজন পাল্লাপাল্টি সাধারণ ডাইরি করেন।অন্তরা বেগম নিখোঁজ হওয়ার পর তার দেড় বছর বয়সের ছেলেকে বাঁচিয়ে রাখা এখন কঠিন হয়ে পড়েছে।ওই গৃহবধূর মা জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে দিঘুলীয়া প্যাড়াডাইস পাড়া এলাকার স্বামীর বাড়ি থেকে আশেকপুর পূর্বপাড়া বাবার বাড়ি রওনা হওয়ার পর মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তার মাকে অবগত করেন। তারপর থেকে প্রবাসীর স্ত্রীর মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। রাতে বাড়ি না ফেরায় শুক্রবার দুপুরে থানায় সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে।তিনি আরো বলেন, ‘আড়াই বছর আগে আমার মেয়ের বিয়ে হয়। তাদের সংসাদের দেড় বছরের এক ছেলে রয়েছে। টাকা পয়সার জন্য আমার মেয়েকে এর আগে তার শ্বশুড়বাড়ির লোকজন মানসিক নির্যাতন করতো। আমার মেয়েকে সুস্থ অবস্থায় ফেরত চাই।’প্রবাসী জনি মিয়ার বোন বলেন, ওই গৃহবধু তাদের বাড়ি থেকে নগদ পাঁচ লাখ টাকা, ছয় বড়ি স্বর্ণসহ তার দেড় বছরের ভাতিজাকে নিয়ে তার বাবার বাড়ির উদ্দেশ্যে রিক্সাযোগে রওনা হয়েছে। তবে সে তার বাবার বাড়ি না গিয়ে আশেকপুর বাইপাসে একটি ছেলের সাথে বাসে উঠে চলে গেছে। এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে। আমাদের পরিবারের পক্ষ থেকে ধারনা করা হচ্ছে সে ওই যুবকের সাথে চলে গেছে।টাঙ্গাইল সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মীর মোশারফ হোসেন বলেন, সাধারণ ডায়েরী হওয়ার পর তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষে ঘটনার মুল রহস্য জানা যাবে।